Published On: Thu, Jan 12th, 2017

যে কারণে শীর্ষ নির্বাহীরা দিনের শুরুতেই এক গ্লাস পানি পান করেন

কেট কোল, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত ফোকাস ব্র্যান্ডের প্রেসিডেন্ট। এই ব্র্যান্ডটি আন্টি অ্যান’স, কার্ভেল এবং সিনাবন এর মূল কম্পানি।

Must Like and Share 🙂

কেট কোল প্রতিদিন ভোর পাঁচটায় ঘুম থেকে ওঠেন। এবং ঘুম থেকে উঠেই তিনি ২৪ আউন্স পানি খান।
হাফিংটন পোস্টের প্রতিষ্ঠাতা আরিয়ানা হাফিংটন এবং সাবেক ব্রিচবক্স ম্যান প্রধান ব্র্যাড ল্যান্ডে দুজনেই তাদের দিন শুরু করেন লেবুর রস মিশ্রিত এক গ্লাস গরম পানি দিয়ে।
এই শীর্ষ কর্মকর্তারা কেন কফির বদলে শুধু এক গ্লাস পানি পান করে দিন শুরু করেন?
বিষয়টি নিয়ে বিজনেস ইনসাইডার কথা বলে পুষ্টিবিদ রানিয়া বাতায়নেহ এর সঙ্গে। যিনি ‘দ্য ওয়ান ওয়ান ওয়ান ডায়েট’ এর লেখক। তিনি এক গ্লাস পানির সম্ভাব্য উপকারিতা নিয়ে কথা বলেন।
যে পাঁচটি কারণে তিনি সকলকেই এক গ্লাস পানি পান করে দিন শুরু করার পরামর্শ দেন সেগুলো হলো:
১. সকালে ঘুম থেকে উঠেই এক গ্লাস পানি পান করলে দেহের আর্দ্রতা ফিরে আসে
রাতে টানা ছয় থেকে আট ঘন্টার ঘুমের সেশনটি সাধারণত পানি পান ছাড়াই অতিবাহিত হয়। সতুরাং ঘুম থেকে ওঠার পরপরই এক বা দিই গ্লাস পানি পান করলে দেহের আর্দ্রতা ফিরে আসে।
আর কফিতে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকলেও তা যেহেতু দেহকে পানিশুন্য করে সেহেতু কফি এড়িয়ে চলাই ভালো। কফির বদলে পানি করলেই বরং আপনি বেশি উপকারিতা পাবেন।
২. সকালে ঘুম থেকে উঠে প্রধমেই পানি পান করলে আপনার মস্কিষ্কের সতর্কতার মাত্রা বৃদ্ধি পাবে
ক্লান্তি ও উদ্যমহীনতার একটি বড় লক্ষণ হলো আপনার দেহের আর্দ্রতা কমে আসা। পানি যেহেতু দেহ এবং মস্তিষ্ককে সচল রাখার ক্ষেত্রে সহায়ক ভুমিকা পালন করে সেহেতু এটি আমাদের মেজাজ মর্জির ভারসাম্যও রক্ষা করে ঘনিষ্ঠভাবে।
কোনো কিছু পান বা ভক্ষণ ছাড়াই রাতে ঘুমানোর দীর্ঘ সময়টি পার করার পর সকালে আপনি দেহকে প্রথমেই একটি ঝাঁকুনি খাওয়াতে পারেন। আপনি যদি ঘুম থেকে ওঠার পর প্রথমেই এক গ্লাস বরফ ঠাণ্ডা পানি পান করেন তাহলে তা আপনার দেহকে দ্রুত সচল করে তুলবে এবং আপনার সতর্কতা ও শক্তির মাত্রা কয়েকগুনে বাড়িয়ে তুলবে।
৩. সকালে প্রথমেই পানি পান করলে মস্তিষ্কে জ্বালানি সরবরাহ হয়
দৈনিক উৎপাদনশীলতার ক্ষেত্রে জলযোজন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মানব মস্তিষ্কের ৭৩ শতাংশই পানি দিয়ে তৈরি। সুতরাং মস্তিষ্ককে সচল রাখতে হলে জলযোজন জরুরি। তবে এমন নয় যে, শুধু সকালবেলাতেই পান করলে চলবে। বরং সারা দিনজুড়েই পানি পান প্রক্রিয়া অব্যাহত রাখতে হবে। অবশ্য, এক গ্লাস পানি পান করে দিন শুরু করলে সঠিক পথে একধাপ এগিয়ে থাকা গেল।
৪. নিয়মিতভাবে এক গ্লাস পানি পান করে দিন শুরু করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে
রাতে আপনি যখন ঘুমান তখন আপনার দেহে মেরামত এবং আরোগ্য লাভ প্রক্রিয়া চলতে থাকে। এসময় আপনার রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা আপনার দেহকে বিষমুক্ত করনের জন্য কঠোর পরিশ্রম করে। যথেষ্ট পরিমাণ পানি পান করার মাধ্যমে আপনি সেই প্রক্রিয়াকে আরো জোরালো করতে পারেন।
মস্তিষ্ক ছাড়াও মানবদেহের আরো কয়েকটি প্রধান অঙ্গও পানি দিয়ে গড়া। যেমন, হৃদপিণ্ড, কিডনি এবং ফুসফুসের বেশিরভাগও পানিতে তৈরি। সরলভাবে বলতে গেলে, জলযোজিত থাকাটা স্বাস্থ্যবান থাকার মুল চাবিকাঠি।
৫. প্রতিদিন সকালে প্রথমেই এক গ্লান পানি করলে আপনার পরিপাকতন্ত্র আরো শক্তিশালি হবে
আপনি বেঁচে থাকার জন্য প্রতিদিন জরুরি কার্বোহাউড্রেট এবং প্রোটিন খান তা হজম করতে ও দেহজুড়ে ছড়িয়ে দিতে প্রধান ভুমিকা পালন করে পানি। সুতরাং প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করলে তা আপনার হজমপ্রক্রিয়াকে আরো শক্তিশালি করবে।
খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণেও সহায়ক ভুমিকা পালন করে পানি। দেহ পর্যাপ্ত পরিমাণে জলযোজিত না হলে আমরা তৃষ্ণাকে ক্ষুধা মনে করে ভুল করতে পারি। যার ফলে আমরা বেশি খাবার খেয়ে ফেলতে পারি।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>